ভোটের আবহে বার্তা বুদ্ধর, বললেন “নন্দীগ্রাম ও সিঙ্গুরে এখন শ্মশানের নীরবতা”

বুদ্ধদেব ভট্টাচার্য ঠিক কী জানালেন? 

0
2

বুদ্ধদেব ভট্টাচার্য ঠিক কী জানালেন?

ভোটের আবহে বার্তা বুদ্ধর, বললেন “নন্দীগ্রাম ও সিঙ্গুরে এখন শ্মশানের নীরবতা”

নন্দীগ্রাম: চলতি বিধানসভা নির্বাচনে সবচেয়ে নজড়কাড়া আসন যে নন্দীগ্রাম, সেকথা আর নতুন করে বলার প্রয়োজন নেই। বিজেপির শুভেন্দু অধিকারী, তৃণমূলের মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ও সংযুক্ত মোর্চা সমর্থিত বামেদের প্রার্থী মীনাক্ষী ভট্টাচার্য। তিন প্রার্থীর লড়াই লালমাটিতে।

দ্বিতীয় দফা অর্থাৎ ১ এপ্রিল ভোট নন্দীগ্রামে। তার আগে বার্তা দিলেন প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী বুদ্ধদেব ভট্টাচার্য। বিবৃতিতে তিনি লিখেছেন, ‘বামফ্রন্ট সরকারের সময় থেকেই যে অর্থনৈতিক-রাজনৈতিক ভাবনা আমরা রাজ্যের মানুষকে বলার চেষ্টা করছি, তা হল কৃষি আমাদের ভিত্তি, শিল্প আমাদের ভবিষ্যৎ। আমরা সেই পথ ধরেই এগিয়েছি। কিন্তু দুর্ভাগ্যবশত বর্তমান সরকারের হাতে গত দশ বছরে সেই কৃষিতে আমরা পিছিয়ে পড়েছি। উল্লেখযোগ্য কোনও শিল্প আসেনি গত এক দশকে। নন্দীগ্রাম ও সিঙ্গুরে এখন শ্মশানের নীরবতা। সে সময়ের কুটিল চিত্রনাট্যের চক্রান্তকারীরা আজ দুভাগে বিভক্ত হয়ে পরস্পরের বিরুদ্ধে কাদা ছোড়াছুড়ি করছে। কর্মসংস্থানের সুযোগ হারিয়েছে বাংলার যুব সমাজ। সরকারি ক্ষেত্রে কোনও নিয়োগ নেই। বাংলার মেধা ও কর্মদক্ষতা, যা আমাদের সম্পদ, তা আমাদের রাজ্য ছেড়ে ভিনরাজ্যে চলে যেতে বাধ্য হচ্ছে।’

প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী আরও লিখেছেন, ‘গত এক দশকে পশ্চিমবঙ্গ সবদিক দিয়েই পিছিয়ে পড়েছে। যুবদের কাজের স্বপ্ন চুরমার হয়ে গিয়েছে। শিক্ষাঙ্গন কলুষিত। স্বাস্থ্য পরিষেবা গরিব মানুষের নাগালের বাইরে, কার্যত ভেঙে পড়েছে।’ বুদ্ধদেব ভট্টাচার্যর আবেদন, ‘বামফ্রন্ট-কংগ্রেস-আইএসএফ সৈরতন্ত্র ও সাম্প্রদায়িকতা বিরোধী জনগণের মোর্চা (সংযুক্ত মোর্চা) তৈরি করেছে। রাজ্যের সমস্ত আসনে সংযুক্ত মোর্চার প্রার্থীদের জয়যুক্ত করুন।’

বুদ্ধদেব ভট্টাচার্য

শেয়ার করে ভারতীয় হওয়ার গর্ব করুন

আপনার মতামত জানান