আশঙ্কা করোনার তৃতীয় ঢেউয়ের! অগাস্টের দ্বিতীয় সপ্তাহে আর ভ্যালু পৌঁছালো ১.১৭-তে

Loading

 

লড়াই ২৪ ডেস্ক: অগাস্টের দ্বিতীয় সপ্তাহে আর (R) ভ্যালু পৌঁছালো ১.১৭-তে। কতটা বিপদ্দজনক হতে পারে তৃতীয় ঢেউ ? জেনে নিন। জবজীবন করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ের আতঙ্ক কাটিয়ে ধীরে ধীরে স্বাভাবিক ছন্দে ফিরছে। তার মধ্যেই আশঙ্কা তৈরি হয়ে গেছে করোনার তৃতীয় ঢেউয়ের।

তৃতীয় ঢেউ অক্টোবর মাসে আসতে চলেছে । তার মধ্যেই চিন্তা তৈরি করছে আর ভ্যালু। ইনস্টিটিউট অফ ম্যাথেমেটিক্যাল সায়েন্সেস চেন্নাইয়ের তরফ থেকে জানানো হয়েছে যে, আগস্টের শেষ সপ্তাহে বিশেষত ১৪ থেকে ১৭ আগস্টের মধ্যে আর ভ্যালু ০.৮৯ থেকে ১.১৭ এ উন্নীত হয়েছে।

https://news.google.com/publications/CAAqBwgKMJ-knQswsK61Aw?hl=en-IN&gl=IN&ceid=IN:en

আরও পড়ুন…………….২২ থেকে ২৭ সেপ্টেম্বরের মধ্যে আমেরিকা সফরে যেতে পারেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি!

গবেষণা টিমের শীর্ষক সিতাভদ্র সিনহা সংবাদ সংস্থাকে জানিয়েছেন যে, এই আর মান শুধুমাত্র একটির থেকে বড় নয়, বরং আগের তুলনায় অনেক ভয়ঙ্কর আকার ধারণ করতে চলেছে তৃতীয় ঢেউ।

তিনি জানান, দ্বিতীয় ঢেউয়ের সময় এই মান ছিল ১.০৩। সবচেয়ে উল্লেখযোগ্য ভাবে কেরালা এবং মহারাষ্ট্র, এমনকি মিজোরাম এবং জম্মু ও কাশ্মীরেরও এই মান ১ ছাপিয়ে যায়। এই প্রজনন সংখ্যা বা আর মান বোঝায় যে একটি সংক্রমণ কত দ্রুত ছড়িয়ে পড়ছে। যখন একটি ঢেউ শীর্ষে থাকে, তখন এটা স্পষ্ট হয় যে ভাইরাসটি দ্রুত হারে ছড়িয়ে পড়ছে।

কিন্তু যখন ঢেউ কমতে শুরু করে, তখন আর ভ্যালুর সামান্য বৃদ্ধি আবার ঢেউয়ের আসন্ন ঊর্ধ্বমুখী প্রবণতা নির্দেশ করতে পারে। এই আর-এর মান যদি ১-এর চেয়ে বেশি হয়, তাহলে এর অর্থ হল প্রতিটি রাউন্ডে সংক্রামিত মানুষের সংখ্যা বাড়ছে। এই অবস্থাকে মহামারী পর্যায় বলা হয়। অন্য কথায়, এটিকে বলে যে কীভাবে দক্ষতার সাথে একটি ভাইরাস ছড়িয়ে পড়ছে।

অগাস্ট মাসের এই আর ভ্যালু ১-এর বেশি মান ধারণ করেছে। ইন্সটিটিউট অফ ম্যাথমেটিক্যাল সায়েন্সেস অনুসারে কেরালার আর-ভ্যালু ১.৩৩, যা দেশের সর্বোচ্চ সক্রিয় কেস। মিজোরামে এটি ছিল ১.৩৬, জম্মু ও কাশ্মীরে ১.২৫, অন্ধ্র প্রদেশে ১.০৯ এবং মহারাষ্ট্রে ১.০৬ ছিল আর-এর মান। এখান থেকেই ধারণা করা যায় যে, তৃতীয় ঢেউ কতটা ভয়ঙ্কর রূপ নিতে চলেছে।

Author

Share Please

Make your comment