Crypto Credit Card বাজারে এল! জেনে নিন খুঁটিনাটি

0
68

Crypto Credit Card

লড়াই ২৪ : ক্রিপ্টোকারেন্সির বাজার বর্তমানে খুব তেজ গতিতে বাড়ছে। এই ক্রিপ্টোকারেন্সির বাজারে ব্যবহার করার জন্য চলে এসেছে ক্রিপ্টো ক্রেডিট কার্ড ব্যাঙ্কের কার্ডের মতো হলেও ক্রিপ্টো ক্রেডিট কার্ডের কয়েকটি আলাদা বৈশিষ্ট্য রয়েছে।

টাকার বাজারে অর্থাৎ মানি মার্কেটে ক্রিপ্টো ক্রেডিট কার্ডের খুঁটিনাটি এক নজরে দেখে নেওয়া যাক।

ক্রিপ্টো ক্রেডিট কার্ড কী?

ক্রিপ্টো ক্রেডিট কার্ড হল ব্যাঙ্কের ক্রেডিট কার্ডের মতোই এক ধরনের ক্রেডিট কার্ড। এই ক্রিপ্টো ক্রেডিট কার্ডের সঙ্গে ব্যাঙ্কের ক্রেডিট কার্ডের পার্থক্য হল ব্যাঙ্কের ক্রেডিট কার্ডের মাধ্যমে ব্যাবহার করা যায় নোট কারেন্সি ও কয়েন কারেন্সি আর ক্রিপ্টো ক্রেডিট কার্ড ব্যবহার করা যায় ডিজিটাল কারেন্সি অথবা ক্রিপ্টোকারেন্সির  ক্ষেত্রে। ক্রিপ্টো ক্রেডিট কার্ডের সাহায্যে প্রথমে ক্রিপ্টোকারেন্সিকে সেই দেশের কারেন্সিতে পরিবর্তন করা হবে এবং তার পর পেমেন্ট করার জন্য দেওয়া হবে।

বিভিন্ন ধরনের ক্রিপ্টো ক্রেডিট কার্ড তাদের ইউজারদের বিভিন্ন ধরণের সুবিধা প্রদান করে থাকে। যেমন জেমিনি ক্রেডিট কার্ড বিটকয়েনে ৩ শতাংশ পর্যন্ত রিওয়ার্ড প্রদান করে। ব্লকফি ক্রেডিট কার্ড বিটকয়েন, ইথেরিয়াম সহ ১০ ধরনের ক্রিপ্টোকারেন্সির পেমেন্টে ১.৫ শতাংশ পর্যন্ত রিওয়ার্ড প্রদান করে থাকে।

ক্রিপ্টো ক্রেডিট কার্ড ভিসা এবং মাস্টারকার্ডের সাহায্যে তৈরি করা যায় । এর জন্য প্রথমেই যে কোনও ক্রিপ্টো অর্গানাইজেশন থেকে ক্রিপ্টো ক্রেডিট কার্ড জারি করাতে হবে। ক্রিপ্টোকারেন্সির কাজ করা বিভিন্ন ধরনের একচেঞ্জ কোম্পানি এই ধরনের ক্রিপ্টো ক্রেডিট কার্ড জারি করার কাজ করে।

ক্রিপ্টো ক্রেডিট কার্ডের পেমেন্ট দেরি করে করলে বেশি পরিমাণে সুদ দিতে হয়। এছাড়াও এর পেমেন্ট দিতে দেরি করলে লেট ফি দিতে হয়। ব্যাঙ্কের ক্রেডিট কার্ডে এই বিদেশি এক্সচেঞ্জের চার্জ কাটা হলেও ক্রিপ্টো ক্রেডিট কার্ডে এই ধরনের কোনও চার্জ কাটা হয় না। এছাড়াও ব্যাঙ্কের ক্রেডিট কার্ডে যে ধরনের অতিরিক্ত শুল্ক কাটা হয়, ক্রিপ্টো ক্রেডিট কার্ডের ক্ষেত্রে সেই ধরনের কোনও অতিরিক্ত শুল্ক কাটা হয় না।

Crypto Credit Card

শেয়ার করে ভারতীয় হওয়ার গর্ব করুন

আপনার মতামত জানান