বিশ্বভারতীকে রাজনীতির আখড়া করা হচ্ছে, দিলীপ ঘোষ

0
270
dilip ghosh in home quarantine

 

লড়াই ২৪ ডেস্ক: ফের একবার হেডলাইনে বিশ্বভারতী। কিছুদিন আগেই তৃণমূলের অনুব্রত মন্ডল দাবি করেছিলেন, বিশ্বভারতীকে রাজনীতির আখড়া করে তোলা হচ্ছে। এবার সেই একই বক্তব্য টেনে এনে রাজ্য সরকারকে দুষলেন দিলীপ ঘোষ। শনিবার ইকো পার্কে প্রাতঃভ্রমণ সেরে তিনি বলেন, “বিশ্বভারতীকে রাজনীতির আখড়া করা হচ্ছে। শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ভণ্ডামি করার জায়গা নয়। বিশ্বভারতী আমাদের কাছে গর্বের বিষয়। রাজনীতি করে বিশ্ববিদ্যালয়ের গরিমা নষ্ট করা হচ্ছে।”

ক্যাম্পাসের মধ্যে চলছে রাজনীতি, জানিয়েছে BJP ও TMC দুই রাজনৈতিক দলই।  শুক্রবার বিশ্বভারতীর সেন্ট্রাল অফিস ঘেরাও নিয়ে উত্তাল হয় বিশ্ববিদ্যালয় চত্বর। তিন ছাত্রকে বরখাস্ত করা নিয়ে এই যাবতীয় বিতর্কের সূত্রপাত হয়। এদিন উপাচার্যের বাসভবনও ঘেরাও করেন ছাত্রছাত্রীরা। এদিকে শুরু বিশ্বভারতী নয়, তিন ছাত্রকে বরখাস্ত করার প্রতিবাদে সরব হচ্ছেন অন্যান্য বিশ্ববিদ্যালয়ের পড়ুয়ারাও। ইতিমধ্যেই এই বিষয়ে সরব হয়েছেন তৃণমূলের বীরভূম জেলা সভাপতি অনুব্রত মণ্ডল।  তিনি জানান, “উপাচার্য বিদ্যুৎ চক্রবর্তীকে তিন দিন ঘেরাও করা হবে।” আর এরপরেই দিলীপ ঘোষের এই মন্তব্যকে বেশ অর্থবহ বলে মনে করছে ওয়াকিবহাল মহল।

আরও পড়ুন………………..উৎসবের মরশুমে ঠেকাতে হবে ভিড়, নির্দেশ কেন্দ্রের

উল্লেখ্য, এদিন বিশ্বভারতী ছাড়াও আরও একগুচ্ছ ইস্যু নিয়ে সুর চড়ান BJP রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। তিনি বলেন, “রাজ্যে কেন্দ্রের দেওয়া সাড়ে তিন কোটি ভ্যাকসিন পড়ে রয়েছে। কিন্তু তা দেওয়া হচ্ছে না সাধারণ মানুষকে। করোনার তৃতীয় ঢেউ আসার আগে টিকাকরণে গতি আনা প্রয়োজন।” এখানেই না থেমে তিনি আরও বলেন, “বেসরকারি হাসপাতালে টাকার বিনিময়ে টিকা পাওয়া যাচ্ছে। কিন্তু সরকারি কেন্দ্রে লাইনে দাঁড়িয়েও টিকা পাচ্ছে না সাধারণ মানুষ।”

পাশাপাশি, ছাত্র পরিষদের প্রতিষ্ঠা দিবস নিয়েও তৃণমূলকে নিশানা করে দিলীপ ঘোষ। তিনি বলেন, ‘বিরোধীরা কোনো কিছু করলেই তাঁদের গ্রেফতার করা হচ্ছে, কিন্তু যারা আইন তৈরি করছেন তারাই আইন মানছেন না।’

Advertisement
শেয়ার করে ভারতীয় হওয়ার গর্ব করুন

আপনার মতামত জানান