নিয়মিত মদ খেয়ে সংসারে অশান্তি, মাতাল ছেলেকে খুন করল বাবা

0
55
ফাইল ছবি

জলপাইগুড়ি: দিন-রাত ছেলে শুধু বোতল বোতল মদ খায়, কোনও কাজ করে না। পরিবারের লোক অতিষ্ট ছেলেকে নিয়ে। শুধু এখানেই থেমে নেই। নিয়মিত মদ খেয়ে বাড়ি ফিরে বাবা, মা, বউ আর ছেলেকে পেটানোর মতো অত্যাচারের মাত্রা বাড়ছিল দিনদিন। এমন ছেলেকে খুন করে কাক ভোরে সটান থানায় হাজির হল বাবা। সোমবার চাঞ্চল্যকর এই ঘটনাটি ঘটেছে জলপাইগুড়ি শহরে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, ৭৩ বছরের ওই বৃদ্ধের নাম অনিল দেবনাথ। বাড়ি জলপাইগুড়ি শহরের অরবিন্দ নগরে। তিনি পেশায় সবজি বিক্রেতা। অনিলবাবুর একমাত্র ছেলে সুনীল দেবনাথ কার্যত কোনও কাজকর্ম করে না। এদিকে সে বিবাহিত এবং তাঁর একটি ছেলেও আছে। দিন রাত নেশা করে পড়ে থাকে। কেউ কিছু বললেই মারধর করে। পরিবারে অশান্তি নিত্যদিনের ঘটনা হয়ে দাঁড়িয়েছিল।

শনিবার রাতে এমনই তুলকালাম বেধে গিয়েছিল দেবনাথ পরিবারে। যার কারণে শেষ পর্যন্ত বাবার হাতে মরতে হল ছেলেকে। পুলিশের কাছে অনিল দেবনাথের দেওয়া বয়ানে তিনি জানিয়েছেন, এদিন ভোররাতে নিজে হাতে ঘুমন্ত ছেলেকে খুন করে থানায় অস্ত্র সমেত হাজিরা দেন অনিলবাবু। ছেলের অত্যাচারে অতিষ্ট হয়েই এই কাজ করতে বাধ্য হয়েছেন তিনি। নাহলে ছেলেই তাঁদের বাড়ির সকলকে কোনও একদিন পিটিয়ে মেরে দিত।

রীতিমতো চমকে ওঠে থানায় কর্মরত পুলিশকর্মীরা। পরে তাঁকে থানায় বসিয়ে অনিলবাবুর দেওয়া ঠিকানায় লোক পাঠিয়ে ঘটনার সত্যতা নিয়ে খোঁজ নেন। অনিল বাবুকে গ্রেফতার করে ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।

শেয়ার করে ভারতীয় হওয়ার গর্ব করুন

আপনার মতামত জানান