মর্মান্তিক! ছেলের আত্মঘাতী হওয়ার খবর পেয়ে আত্মঘাতী হলেন বাবা

0
46
ছবি: প্রতীকী

মর্মান্তিক! ছেলের আত্মঘাতী হওয়ার খবর পেয়ে আত্মঘাতী হলেন বাবা

কৃষ্ণনগর: লকডাউন আবহে কাজ নেই। তাই মানসিক অবসাদে ভুগছিলেন নদিয়ার নবদ্বীপ থানার মাজদিয়া বেলতলার যুবক বছর ৩০-এর দীপঙ্কর মালাকার। এই পরিস্থিতিতে বিষ খেয়ে আত্মঘাতী হন তিনি।

তবে, ছেলের এই অকালে চলে যাওয়া মেনে নিতে পারেননি বৃদ্ধ বাবা। শুক্রবার তাঁরও ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার করে পুলিশ। মৃতের নাম দিলীপ মালাকার, বয়স ৬০ বছর। মর্মান্তিক এই ঘটনায় শোকে পাথর গোটা পরিবার।

পরিবার সূত্রে জানা গেছে, বৃহস্পতিবার ছেলের মৃত্যুর খবর আসার পর থেকেই পাগলের মতো হয়ে গেছিলেন বাবা। তারপরই গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মঘাতী হন তিনি।

খবর পেয়ে নবদ্বীপ থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে যান। সেখান থেকে মৃতদেহটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য শক্তিনগর হাসপাতালে পাঠায়। ছেলে দীপঙ্করের মৃতদেহের ময়নাতদন্ত করা হবে শক্তিনগর হাসপাতালে। এরপর একইসঙ্গে বাবা-ছেলের মৃতদেহ নিয়ে আসা হবে বেলতলা পাড়ার বাড়িতে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যাচ্ছে, ছেলে দীপঙ্কর একটি হোটেলে কাজ করতেন। অভাবের সংসারে তিনিই ছিলেন একমাত্র রোজগেরে। কিন্তু করোনার জন্যি চলছে এই দীর্ঘ লকডাউন। ফলে বন্ধ হয়ে যায় রোজগার। ফলে চরম আর্থিক সমস্যায় পড়ে পরিবার।

এমনকি বৃদ্ধ বাবা-মায়ের চিকিৎসার খরচও জোগার করতে পারছিল না ছেলে। ফলে চরম মানসিক অবসাদে ভুগতে শুরু করে দীপঙ্কর। মর্মান্তিক এই ঘটনায় ওই এলাকায় শোকের ছায়া নেমেছে। একসঙ্গে স্বামী ও সন্তানের মৃত্যুর খবরে ঘনঘন সংজ্ঞা হারাচ্ছেন দিলীপবাবুর স্ত্রী।

শেয়ার করে ভারতীয় হওয়ার গর্ব করুন

আপনার মতামত জানান