রাতে পিকনিক করতে গিয়ে আত্মঘাতী পরিযায়ী শ্রমিক

0
88

রাতে পিকনিক করতে গিয়ে আত্মঘাতী পরিযায়ী শ্রমিক

মেদিনীপুর: দেশজুড়ে জারি হওয়া লকডাউনের জন্য কাজ হারিয়েছেন বহু মানুষ। মানসিক অবসাদে ভুগছে অনেকেই। এমনই মেদিনীপুরের এক পরিযায়ী শ্রমিকও লকডাউনে কাজ হারিয়ে দুশ্চিন্তায় ছিলেন। অবসাদে ভুগছিলেন, কিন্তু কাউকে কিছু বুঝতে দেননি।

বৃহস্পতিবার রাতে পিকনিক করতে যাবেন বলে বেরিয়ে আত্মহত্যা করেন পশ্চিম মেদিনীপুরের গড়বেতার পরিযায়ী শ্রমিক অসীম ঘোষ। শুক্রবার সকালে গাছে ঝুলন্ত অবস্থায় তাঁর দেহ উদ্ধার করা হয়। কাঞ্চনগিরি গ্রামে পরিযায়ী শ্রমিকের মৃত্যুর তদন্তে নেমেছে গড়বেতা থানার পুলিশ।

গড়বেতার কাঞ্চনগিরি গ্রামের বাসিন্দা ২৫ বছরের অসীম ২ বছর আগে গুজরাটের আহমেদাবাদে যান কাজের খোঁজে। সেখানে একটি ব্যাগের কোম্পানিতে কাজ করতেন তিনি। তার আগে ২ বছর তিনি ছিলেন বেঙ্গালুরুতে।

এরপর লকডাউনে কাজ হারিয়ে মাসখানেক আগে আহমেদাবাদ থেকে বাসে করে ফেরেন পশ্চিম মেদিনীপুরের বাড়িতে। গ্রামের এক প্রাথমিক স্কুলে ২০ দিন কোয়ারেন্টাইনে ছিলেন। তারপর নিজের বাড়িতে যান।

মৃতের দাদা অচিন্ত্য জানিয়েছেন, ফেরার পর থেকে তাঁর ভাইয়ের মানসিক সমস্যা হচ্ছিল। ভারসাম্য টলে যাচ্ছিল মাঝেমধ্যেই। পরিবার সূত্রে জানা গিয়েছে, বৃহস্পতিবার রাতে অসীম বাড়িতে জানায় যে বন্ধুদের সঙ্গে পিকনিক করতে যাচ্ছে। রাতে বাড়ি ফিরবে না। রাত ৮টা নাগাদ বেরিয়ে যান বাড়ি থেকে।

এরপর সকালে বাড়ির অদূরে প্রাইমারি স্কুলের পাশের একটি বটগাছে তাঁর ঝুলন্ত দেহ দেখতে পান স্থানীয় বাসিন্দারা। তাঁরাই বাড়িতে খবর দেন। তারপর খবর দেওয়া হয় গড়বেতা থানায়। পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়মাতদন্তের পাঠায়।

প্রাথমিকভাবে অনুমান করা হচ্ছে, লকডাউনে কাজ হারিয়ে বাড়ি ফেরার পর উৎকণ্ঠায় ভুগছিলেন। সেখান থেকেই মানসিক ভারসাম্যের সমস্যা হচ্ছিল। তাই আত্মহত্যার পথে বেছে নিয়েছেন অসীম ঘোষ।

Advertisement
শেয়ার করে ভারতীয় হওয়ার গর্ব করুন

আপনার মতামত জানান