বন্ধ কংগ্রেসের টুইটার অ্যাকাউন্ট, ক্ষোভ উগড়ে দিল নেতৃত্ব

Loading

 

লড়াই ২৪ ডেস্ক:  রাহুল গান্ধীর পর এবার অস্থায়ীভাবে বন্ধ হল কংগ্রেসের টুইটার অ্যাকাউন্ট। দলের তরফে একটি ইনস্টাগ্রাম পোস্টের মাধ্যমে এই খবর জানানো হয়। বাক স্বাধীনতা হরণের অভিযোগ প্রকাশ করেছে কংগ্রেস।

কয়েক ঘন্টা আগেই অস্থায়ীভাবে বন্ধ হয়ে যায় রাহুল গান্ধীর টুইটার অ্যাকাউন্ট। এমনকি শুধু রাহুল গান্ধী নন, কংগ্রেসের আরও ৫ বর্ষীয়ান নেতার টুইটার অ্যাকাউন্ট বন্ধ করে দেওয়া হয়। এরমধ্যে আবার কংগ্রেসের মিডিয়া বিভাগের প্রধান রণদ্বীপ সুরজেওয়ালার টুইটার অ্যাকাউন্টটিও বন্ধ হয়ে যায়। শুধু কংগ্রেস নেতা নয়, দলের মূল অফিশিয়াল অ্যাকাউন্টটিকেও অস্থায়ীভাবে বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে।

https://news.google.com/publications/CAAqBwgKMJ-knQswsK61Aw?hl=en-IN&gl=IN&ceid=IN:en

আর পড়ুন…………….ফের দেশে বাড়ছে কোভিডের সংক্রমণ, তবে কি আসন্ন তৃতীয় ধেউ

এই পরিপ্রেক্ষিতে কংগ্রেসের ইনস্টাগ্রাম অ্যাকাউন্টে একটি পোস্ট করা হয় সেখানে বলা হয়েছে, “মোদিজি আপনি কি এতটা ভয় পেয়েছেন? মনে রাখবেন কংগ্রেস দেশের স্বাধীনতার জন্য লড়াই করেছিল। আমরা তখনও জয়ী হয়েছিলাম, এখনও হব।”

আপাতত ৪ দিনের জন্য বন্ধ থাকবে রাহুল গান্ধীর টুইটার অ্যাকাউন্ট। নিয়ম ভঙ্গের কারণেই নেতাদের বিরুদ্ধে এই পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে, বলে জানা যাচ্ছে।

এই পদক্ষেপের জন্য প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ও টুইটার প্রধান Jack Dorsey-কেই দায়ি করছে কংগ্রেস। তাদের বক্তব্য, যাবতীয় অন্যায়ের বিরুদ্ধে কংগ্রেসের লড়াই জারি ছিল এবং থাকবে। সরকারের চাপের মুখে পড়েই রাহুল গান্ধীর অ্যাকাউন্ট বন্ধ করে দিয়েছে টুইটার।

৯ বছরে কিশোরীকে নিগ্রহে তোলপাড় দিল্লি। এদিন রাহুল গান্ধী সেই কিশোরীর পরিবারের সঙ্গে দেখা করে তার একটি ছবি সেখানে পোস্ট করে। ছবি পোস্ট করা মাত্রই রাহুল গান্ধী বিরুদ্ধে সরব হন NCPCR বা দ্যা ন্যাশনাল কমিশন ফর প্রটেকশন অফ চাইল্ড রাইট। তার টুইটার অ্যাকাউন্টের বিরুদ্ধে সরব হন তারা। তাদের দাবি, ‘এই ছবি পোস্ট করে রাহুল গান্ধী নিয়ম ভঙ্গ করেছে।’

Author

Share Please

Make your comment