চাপের মুখে পড়ে ক্ষতিগ্রস্থ হিন্দু মন্দির মেরামতের পথে ইমরান সরকার

0
376

 

লড়াই ২৪ ডেস্ক: পাকিস্তানের সিদ্ধি বিনায়ক মন্দিরে ভাঙচুরের ঘটনায় নিন্দায় সরব পাকিস্তানী সুপ্রিম কোর্ট। চাপের মুখে পড়ে অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে পদক্ষেপের পাশাপাশি মন্দিরটি দ্রুত মেরামতের প্রতিশ্রুতি দিল পাক সরকার। সেই মতো পাঞ্জাব প্রদেশের মন্দিরটি সারিয়ে ফের স্থানীয় হিন্দুদের হাতে তুলে দেবে স্থানীয় প্রশাসন।

উল্লেখ্য, পাঞ্জাব প্রদেশের সাদিকাবাদ জেলার ভঙ্গ শরিফ গ্রামের সিদ্ধি বিনায়ক মন্দিরের ভিতরে হামলা চালায় দুষ্কৃতীরা। এক সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমের সূত্রে জানা গিয়েছে, এক সোশ্যাল মিডিয়ার উসকানিমূলক পোস্ট থেকে উত্তেজিত হয়ে লোহার রড, লাঠি, পাথর হাতে দুষ্কৃতীরা দল বেঁধে চড়াও হয় ওই মন্দিরে। শুরু হয় ভাঙচুর।

পাকিস্তানের শীর্ষ আদালত সে দেশের পুলিশ প্রশাসনে উদ্দেশ্যে তোপ উগড়ে দেয়। শীর্ষ আদালত জানায়, “হিন্দুদের ওপর আক্রমণ দেশের পক্ষে লজ্জাজনক। অথচ এই ধরণের ঘটনা দেখার পর নিরব দর্শকের ভূমিকা পালন করেছে পুলিশ প্রশাসন।” হামালার তীব্র নিন্দা করে ভারতের বিদেশমন্ত্রক। বিদেশমন্ত্রকের মুখ্যপাত্র অরিন্দম বাগচী জানায়, পাকিস্তানের মন্দিরে এই ধরণের হামলার কড়া নিন্দা করছি। তিনি আরও বলেন, “এই নিন্দনীয় ঘটনা এবং সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের ধর্মীয় স্বাধীনতা ও তাঁদের ধর্মীয় উপাসনালয়ের উপরে ক্রমাগত হামলায় আমাদের উদ্বেগ প্রকাশ করছি।”

আরও পড়ুন……….বিনামূল্যে রান্নার গ্যাস, পূরণ করতে হবে সামান্য কিছু শর্ত

একই ভাবে টুইট মাধ্যমে হামলার কড়া সমালোচনা করতে দেখা যায় ইমরানকে। সেই দুষ্কৃতীদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেওয়ার আশ্বাস দেন তিনি। নিজের টুইটার হ্যান্ডেলে তিনি লেখেন, “ভঙ্গের গণেশ মন্দিরে হওয়া হামলার তীব্র নিন্দা করছি। ইতিমধ্যেই আমি পাঞ্জাবের আইজিকে নির্দেশ দিয়েছি সমস্ত দুষ্কৃতীকে গ্রেপ্তার করতে এবং পুলিশের গাছাড়া মনোভাবের বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা নিতে। সরকারের তরফেই মন্দির ফের গড়ে দেওয়া হবে।”

Advertisement
শেয়ার করে ভারতীয় হওয়ার গর্ব করুন

আপনার মতামত জানান