স্বাধীনতা দিবসে বন্ধু ও পরিবারের সঙ্গে ভাগ করে নিন সাতটি বিখ্যাত উক্তি

0
185

১৫ আগস্ট এই দিনটি স্বাধীনতা দিবস হিসেবে পালন করা হয় ভারতে। ব্রিটিশদের কাছে পরাধীন হিসেবে কেটেছে প্রায় ২০০ বছর। তারপর ভারতে ব্রিটিশ সাম্রাজ্যের পুরোপুরি পতন ঘটে হাজার ১৯৪৭ সালের ১৫ আগস্ট । দীর্ঘকাল লড়াইয়ের পর ভারত স্বাধীন হয়েছিল, এবং এর স্বাধীনতার পেছনে রয়েছে বহু আত্মত্যাগ ও বলিদান। যারা ছিলেন অনেক সাহসী, ব্রিটিশদের বিরুদ্ধে লড়াই করে টিকে থাকার সাহস। এই দিনটি তাদের জন্য সমর্পিত। আজ তাদের জন্যই ভারত রোজ নতুন আলোর মুখ দেখতে পায়। এই দিনটি জাতীয় ছুটির দিন হিসেবে পরিগণিত হয়।

দেশের প্রতি ভালোবাসা, ঐক্য ও সংহিতা বজায় রাখতে ভারতের পতাকার সামনে আমরা শপথ গ্রহণ ও করি। স্কুল-কলেজ নানা শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান পতাকা উত্তোলনের মাধ্যমে দিনটি উদযাপন করেন। এছাড়া বিভিন্ন ব্যক্তি নিজেদের মতন পতাকা উত্তোলন করে দিনটি পালন করেন। কোথায় কোথায় আবার ঘুড়ি উড়ানো এবং দেশাত্মবোধক না না গান গাওয়ার মাধ্যমে দিনটি পালন করা হয়। দিল্লির লালকেল্লায় প্রধানমন্ত্রী এই দিনটি বিশিষ্ট অতিথিদের সাথে পতাকা উত্তোলন করেন এবং দেশের কাছে নিজের কিছু বক্তব্য পেশ করেন। আজ এই দিনটিকে স্মরণ করে বন্ধু এবং পরিবারের কাছে সাতটি বিখ্যাত উক্তি ভাগ করে নিন

“বহু বছর আগে, আমাদের নিয়তির সঙ্গে এক পরিহাস ঘটে এবং এখন সময় এসেছে যখন আমরা নিজেদের সেই অঙ্গীকার থেকে মুক্ত করতে চলেছি… মধ্যরাত্রিতে যখন বিশ্ব ঘুমাবে, ভারত জীবন ও স্বাধীনতার জন্য জেগে উঠবে।”- জহরলাল নেহেরু 14ই অগাস্ট 1947।

“একটা হাসির থেকেই শান্তি শুরু হয়।“- মাদার টেরেসার বিশেষ উক্তি।

“আমাদের মনে করা উচিত এবং কয়েক বিলিয়ন মানুষের একটি জাতির মত কাজ করা উচিত, এবং কয়েক মিলিয়ন মানুষের মত না। স্বপ্ন, স্বপ্ন, স্বপ্ন দেখুন! চিন্তার মধ্যে এই স্বপ্ন পরিচালনা করুন, এবং তারপর কর্ম তাদের রূপান্তরিত করুন।”- 1998 সালে বলেন এপিজে আব্দুল কালাম।

“ওঠো! জাগো! এবং যতক্ষণ পর্যন্ত নিজের লক্ষে পৌঁছতে না পারো থেমো না।“- স্বামী বিবেকানন্দের বিশেষ উক্তি।

“যেখানে জাতির চিন্তা ও পদক্ষেপ স্বাধীনতার দিকে- হে বিধাতা, আমার দেশকে জেগে থাকতে দিন।”- রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের চিত্ত যেথা ভয় শূন্য কবিতার অংশ।

“স্বরাজ আমার জন্মগত অধিকার এবং আমি তা অর্জন করবোই।“ বাল গঙ্গাধর তিলকের উক্তি।

Advertisement
শেয়ার করে ভারতীয় হওয়ার গর্ব করুন

আপনার মতামত জানান