দারুণ ব্যাপার, করোনা মোকাবিলায় রোবট আবিষ্কার বাংলার দুই ছেলের

0
82

দারুণ ব্যাপার, করোনা মোকাবিলায় রোবট আবিষ্কার বাংলার দুই ছেলের

ত্রিপুরা: বর্তমানে গোটা দেশ কোরোনা মোকাবিলার জন্য নতুন নতুন পথের সন্ধান করছে। এই কঠিন পরিস্থিতিতে ত্রিপুরার দুই যুব প্রকৌশলী ডাক্তারদের সাহায্য করার জন্য তৈরি করেছেন রোবট। যুব প্রকৌশলী দেবাশিস ধর এবং তাঁর খুড়তুতো ভাই অভিষেক ধর রক সঙ্গে যে রোবট তৈরি করেছেন, তা অডিও-ভিডিও সিস্টেমের মাধ্যমে রোগীদের সাথে যোগাযোগের জন্য সহায়তা করতে পারে চিকিত্‍সকদের।

জানা গিয়েছে, তাঁরা এই রোবটটির নাম দিয়েছেন ‘কোকোবট’ (করোনার কম্ব্যাট বট)। তাঁদের এই আবিষ্কার সম্পর্কে দেবাশিস ধর জানান, তাঁরা অতি দক্ষতার সাথে একটি রোবট তৈরি করেছেন যা ডাক্তারকে অডিও-ভিডিও প্ল্যাটফর্মের মাধ্যমে রোগীর সাথে যোগাযোগ স্থাপনের পাশাপাশি কোভিড ওয়ার্ডে ভরতি সংক্রমিতদের কাছে ওষুধ, খাবার এবং অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ সামগ্রী বহন করতে পারে। এক্ষেত্রে শারীরিকভাবে উপস্থিত হওয়ার প্রয়োজন পড়বে না। তাঁর কথায়, লকডাউনের ফলে বাড়ি এসেছেন দু’মাস হল। তাই তাঁরা ভেবেছেন, এই লকডাউনের দৌলতে সরকারকে সহায়তা করা যাক। এজন্য তিনি একটি রোবট তৈরি করার পরিকল্পনা করছিলেন।

দেবাশিস বলেন, আমার খুড়তুতো ভাইকে সাথে নিয়ে রোবটটি তৈরি করেছি যার নাম আমরা ‘কোকোবোট’, মানে ‘করোনার কম্ব্যাট রোবট’ রেখেছি’। দেবাশীসের দাবি, এই রোবটটি করোনা ওয়ার্ডে ভর্তি থাকা রোগীদের খাবার ও ওষুধ সরবরাহ করতে সাহায্য করবে। শুধু তাই নয়, এর অডিও-ভিডিও প্ল্যাটফর্মের মাধ্যমে রোগীর স্বাস্থ্যের অবস্থাও পরীক্ষা করতে সহায়তা করা যাবে। তিনি আরও বলেন, চিকিত্‍সাধীন রোগীরা আরও ভালো বোধ করতে পারেন, তার জন্য প্রেরণাদায়ক অডিও চালানোর জন্য একটি ডিভাইস লাগিয়েছি।

তিনি আরও বলেন, আমরা একটি মাইক, ক্যামেরা এবং স্পিকারও ইনস্টল করেছি যাতে চিকিত্‍সক এবং রোগী শারীরিক স্পর্শ ছাড়াই একে অপরের সাথে যোগাযোগ করতে পারেন, বলেন তিনি। এদিকে, রোবটটির নিয়ন্ত্রণ সম্পর্কে তিনি বলেন, চিকিত্‍সকরা তাঁদের অ্যান্ড্রয়েড মোবাইল ব্যবহার করে রোবটটি নিয়ন্ত্রণ করবেন। একই অ্যাপ্লিকেশন ব্যবহার করে চিকিত্‍সক রোগীর স্বাস্থ্যের অবস্থা পর্যবেক্ষণ করতে পারেন এবং তার সঙ্গে কথা বলতে পারবেন। অ্যাপটিতে ‘স্যানিটাইজ’ বোতামে ক্লিক করার পর রোবটটি স্যানিটাইজার স্প্রে করবে।

Advertisement
শেয়ার করে ভারতীয় হওয়ার গর্ব করুন

আপনার মতামত জানান