জাতীয় সড়কে দুটি গাড়ির মুখোমুখি ধাক্কা, মৃত ৫, গুরুতর আহত ৪

0
94

জাতীয় সড়কে দুটি গাড়ির মুখোমুখি ধাক্কা, মৃত ৫, গুরুতর আহত ৪

গুজরাট: বৃষ্টির মধ্যে জাতীয় সড়কে জোরে গাড়ি চালানোর খেসারত দিতে হল পাঁচজনকে। মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছেন আরও চারজন।

ঘটনাটি ঘটেছে গুজরাতের খেড়া জেলার নাদিয়াদের কাছে ৮ নম্বর জাতীয় সড়কের উপর। জানা গিয়েছে, রবিবার গভীর রাতে হয় এই দুর্ঘটনা। আহমেদাবাদ ও বদোদরার মধ্যে এই ৮ নম্বর জাতীয় সড়কের উপর মুখোমুখি ধাক্কা লাগে দুটি গাড়ির। ঘটনাস্থলেই দু’গাড়ির মোট পাঁচজনের মৃত্যু হয়েছে বলে খবর।

দুর্ঘটনার পরেই খবর দেওয়া হয় পুলিশ, দমকল ও অ্যাম্বুল্যান্সে। সঙ্গে সঙ্গে সেখানে পৌঁছয় পুলিশ। বেশ কিছুক্ষণের জন্য জাতীয় সড়কের একটি অংশে যান চলাচল বন্ধ করে দেওয়া হয়।+6
একটি লেন দিয়েই গাড়ি চলাচল করতে থাকে। দুর্ঘটনায় আহত চারজনকে সঙ্গে সঙ্গে অ্যাম্বুল্যান্সে করে স্থানীয় হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। তাদের অবস্থা যথেষ্ট আশঙ্কাজনক বলেই হাসপাতাল সূত্রে খবর।

নাদিয়াদের ফায়ার সুপারিন্টেন্ডেন্ট দীক্ষিত পটেল জানিয়েছেন, “ঘটনার খবর পেয়েই সেখানে দমকলের একটি ইঞ্জিন, তিনটি অ্যাম্বুল্যান্স ও খেড়া পুলিশ স্টেশনের একটি দল পৌঁছয়। দুর্ঘটনায় গাড়ি দুটির এত খারাপ অবস্থা হয় যে গাড়ি কেটে মৃত ও আহতদের বের করতে হয়। পাঁচজনের ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয়েছে। চারজন গুরুতর আহত। সঙ্গে সঙ্গে তাদের হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। সবাই আহমেদাবাদের বাসিন্দা বলে জানা গিয়েছে। কিন্তু সবার পরিচয় এখনও জানা যায়নি।”

ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ। কীভাবে এই দুর্ঘটনা ঘটল তা খতিয়ে দেখছে তারা। শুধুই চালকদের দোষ না অন্য কিছুও ঘটেছিল তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। দুর্ঘটনার আশেপাশের সিসিটিভি ফুটেজ খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

স্থানীয়রা জানিয়েছেন, আহমেদাবাদ ও বদোদরার মধ্যে এই ৮ নম্বর জাতীয় সড়ক খুবই ব্যস্ত রাস্তা। সবসময় গাড়ির চাপ থাকে এখানে। কিন্তু তারপরেও কিছু গাড়ি অত্যন্ত দ্রুতগতিতে চলে।

বিশেষ করে রাতের দিকে। তারমধ্যে গত কয়েক দিন ধরে মাঝেমধ্যে বৃষ্টি হচ্ছে। তখন এই রাস্তায় জোরে গাড়ি চালানো আরও বিপজ্জনক হয়ে যায়। কিন্তু তাও অনেকে জোরে গাড়ি চালায়। তারফলেই এইরকমের দুর্ঘটনা ঘটে বলে অভিযোগ করেছেন তাঁরা।

শেয়ার করে ভারতীয় হওয়ার গর্ব করুন

আপনার মতামত জানান